ইতালিতে অভিবাসী আইন বাতিলের দাবিতে যৌথ আন্দোলন

italyইতালির রোমে বিভিন্ন দেশের অভিবাসী ও ইতালিয়ান নাগরিকরা ধারাবাহিকভাবে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের অধিকার আদায়ে সম্প্রতি পাস হওয়া বর্ণবাদী আইন বাতিলের দাবিতে আন্দোলনকে বেগবান করছে।

শনিবার দ্বিতীয়বারের মতো রিপাবলিকা চত্বরে স্থানীয় জনগণ জড়ো হয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করে। বিক্ষোভে বিভিন্ন সংগঠনের নেতারাও উপস্থিত ছিলেন। ইতালি সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সালবিনী বর্ণবাদী আইন কার্যকর করায় অভিবাসীরা ভয়-আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে। কয়েক ঘণ্টার সমাবেশে হাজার হাজার লোকের সমাগম হয়।

হাতে ব্যানার, ফেস্টুন নিয়ে স্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠে পুরো রোম শহর। ফলে শহরের গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি সড়ক সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয় প্রশাসন। শান্তিপূর্ণ মিছিলটি রিপাবলিকা চত্বর থেকে শুরু করে শহরের কয়েকটি সড়ক প্রদক্ষিণ করে ভেনেসিয়া চত্বরে গিয়ে শেষ হয়।

এ সময় বক্তারা বলেন, সরকারি বাসা-বাড়ি পাওয়ার অধিকার পূর্ণাঙ্গ দিতে হবে। কর্মস্থলে টেম্পোরারি চুক্তি নয় স্থায়ী চুক্তির ব্যবস্থা করতে হবে। এছাড়াও অন্যান্য দাবি সরকারের কাছে তুলে ধরেন নেতারা। অন্যদিকে বাংলাদেশিদের পক্ষে ‘বাংলাদেশ সমিতি’র ব্যানারে সকলের অধিকার আদায় ও বর্ণবাদী আইন বাতিলের জন্য সাবেক বাংলাদেশ সমিতির সভাপতি ও বাংলাদেশিদের সংগঠন ‘ধুমকেতু’র প্রতিষ্ঠাতা নূরে আলম সিদ্দিকী বাচ্চু বিভিন্ন দাবি তুলে ধরেন।

অবিলম্বে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ডিক্রি বাতিলের আহ্বান জানান। উল্লেখ্য ৪ অক্টোবর নিরাপত্তা ও অভিবাসী আইন পাস হওয়ার পর কিছু ধারা বাতিলের দাবিতে ইতালির বিভিন্ন শহরে বিদেশিদের সংগঠনগুলো প্রতিবাদ সভা ও ধারাবাহিকভাবে সমাবেশ করে যাচ্ছে। ইতালি সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বর্ণবাদী আইন কার্যকর করার ফলে রোমসহ ইতালির বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও র‌্যালি বের করে প্রতিবাদ জানান বিপুল সংখ্যক অভিবাসীসহ স্থানীয় নাগরিকরা।