sentbe-top

কারখানা বন্ধের পর ঋণ পুনর্গঠনের প্রস্তাব জেনারেল মোটরস কোরিয়ার

দক্ষিণ কোরিয়ায় অবস্থিত ডিভিশনের প্রায় ২২০ কোটি ডলারের ঋণ ইকুইটিতে রূপান্তরের প্রস্তাব দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের গাড়ি নির্মাতা কোম্পানি জেনারেল মোটরস (জিএম)। এর বিনিময়ে সিউলের কাছ থেকে আর্থিক সহায়তা ও কর সুবিধা চেয়েছে কোম্পানিটি। সরাসরি বিষয়-সংশ্লিষ্ট চারটি সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে। খবর রয়টার্স।

গত সপ্তাহে ডেট্রয়েটের নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি চলতি বছরের মে নাগাদ দক্ষিণ-পশ্চিম সিউলের গুনসান শহরের কারখানাটি বন্ধ করার ঘোষণা দেয়। একই সঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়ায় অবশিষ্ট তিনটি কারখানার ভবিষ্যৎ নিয়ে কয়েক সপ্তাহের মধ্যে সিদ্ধান্ত নেয়ার কথা জানায় জিএম। এরপর ঋণ পুনর্গঠনের এ প্রস্তাব দেয়া হলো। তবে কোরীয় সরকারের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তার বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত জানানো হয়নি।

ইকুইটির সঙ্গে ঋণবিনিময় জিএমকে দক্ষিণ কোরিয়ায় ব্যবসা কার্যক্রম অব্যাহত রাখার সুযোগ দেবে। তবে এ চুক্তির ফলে রাষ্ট্রায়ত্ত কোরিয়া ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের স্বার্থের ওপর কী প্রভাব পড়বে, তা তাত্ক্ষণিকভাবে স্পষ্ট নয়। জিএম কোরিয়ার ১৭ শতাংশ ব্যাংকটির মালিকানায় রয়েছে।

বিক্রি ও পরিমাণের আগে মুনাফা ও নতুনত্বকে এগিয়ে রাখতে জিএম ধারাবাহিকভাবে যেসব পদক্ষেপ নিয়েছে, তার সর্বশেষ সংযোজন এ প্রস্তাব। উল্লেখ্য, ২০১৫ সাল থেকে ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, রাশিয়াসহ বেশ কয়েকটি অলাভজনক বাজার ত্যাগ করেছে জিএম।

এদিকে জিএম কোরীয় ব্যবসা কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে দক্ষিণ কোরিয়া সরকারের কাছ থেকে কী পরিমাণ নগদ পুঁজি চেয়েছে, তা এখন পর্যন্ত জানা যায়নি। দক্ষিণ কোরিয়ায় জিএমের কারখানাগুলোয় প্রায় ১৬ হাজার কর্মী রয়েছে। তবে জিএম সিউল সরকারের কাছে ১০০ কোটি ডলারের বেশি আর্থিক সহায়তা চেয়েছে বলে একটি সূত্র জানিয়েছে। অন্যদিকে বেশ কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে, মার্কিন কোম্পানিটি এর কোরীয় কারখানাকে বিশেষ বিদেশী বিনিযোগ অঞ্চলের অন্তর্ভুক্ত করার দাবি করেছে। ফলে কোম্পানিটি সাত বছরের জন্য কর অব্যাহতির সুবিধা পাবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সূত্র জানায়, কোরীয় ইউনিটকে পুনর্মূলধনিকরণের কথা জানিয়েছে জিএম। এর বদলে জিএম দক্ষিণ কোরিয়াকে কোম্পানির প্যাকেজ প্রস্তাব গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছে, যার মধ্যে ১০০ কোটি ডলারের বেশি সরকারি সহায়তা রয়েছে।

জিএম কোরিয়ার এক মুখপাত্র জানান, নিজেদের টেকসই পরিকল্পনার সমর্থন নিশ্চিত করতে জিএম সরকার ও শ্রমিক ইউনিয়নের সঙ্গে অব্যাহতভাবে কাজ করে যাবে।

কোম্পানির পুনর্গঠন পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা করতে বুধবার জিএমের আন্তর্জাতিক কার্যক্রমের প্রধান ব্যারি এনগল দক্ষিণ কোরিয়ার বুপেয়ংয়ের ক্ষমতাসীন দলের এক আইনপ্রণেতার নেতৃত্বাধীন একটি টাস্কফোর্সের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। উল্লেখ্য, জিএম কোরিয়ার সবচেয়ে বড় ম্যানুফ্যাকচারিং কারখানাটি বুপেয়ংয়ে অবস্থিত।

বৈঠক শেষে এনগল কোম্পানি দক্ষিণ কোরিয়ায় থাকতে চায় বলে সাংবাদিকদের জানান। তিনি বলেন, আমরা নিশ্চিতভাবেই এখানে থেকে যাওয়া ও ব্যবসা ঠিক করার পাশাপাশি কোরীয় অর্থনীতির একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে থাকার বিষয়টিকে অগ্রাধিকার দিচ্ছি। তবে তিনি জিএম ও কোরীয় সরকারের মধ্যে আলোচনার বিস্তারিত জানাননি।

sentbe-top