sentbe-top

রোনালদোর পেনাল্টি মিসের পরও ড্র করে দ্বিতীয় রাউন্ডে পর্তুগাল

portugalএকটা ফুটবল ম্যাচের এত সুন্দর দৃশ্যপট বোধহয় কেউ আঁকতে পারবে কি-না সন্দেহ। ম্যাচের ৫৩ মিনিটে পেনাল্টি পায় পর্তুগাল। স্পট কিক থেকে পেনাল্টি মিস করে বসেন গ্রুপের প্রথম ম্যাচেই স্পেনের বিপক্ষে পেনাল্টিতে গোল করা রোনালদো। ম্যাচের উত্তেজনা ছড়ায় শেষ মিনিট পর্যন্ত। অতিরিক্ত সময়ে ভিএআরের সহায়তায় পেনাল্টি থেকে গোল করে ১-১ সমতায় আসে ইরান। কিন্তু সেটাও যথেষ্ট ছিল না তাদের জন্য। ড্র করে বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নিতে হলো এশিয়ার দেশ ইরানকে। অন্যদিকে স্পেন শেষ সময়ের গোলে ড্র করে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়াতে পর্তুগালকে দ্বিতীয় হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হলো গ্রুপে।

বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বের নিজেদের শেষ ম্যাচে ইরানের বিপক্ষে মাঠে নামে পর্তুগাল। দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠতে এই ম্যাচে ড্র করলেই চলতো পর্তুগালের। অন্যদিকে, জিততেই হতো এশিয়ান জায়ান্ট ইরানের। এমন কঠিন সমীকরণের ম্যাচে পর্তুগালের সঙ্গে সমান পাল্লা দিয়ে লড়াই করেছে ইরান। প্রথমার্ধে পর্তুগালের কারেজমার গোলে এগিয়ে গেলেও ম্যাচে অন্তিম মুহূর্তে গোল করে ইরানকে সমতায় ফেরান আনসারিফার্দ।

প্রথম দুই ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও শুরুতেই গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন রোনালদো। কিন্তু তিন মিনিটের মাথায় ডি বক্সের ভেতর তার নেয়া শট রুখে দেন ইরানিয়ান গোলরক্ষক। ম্যাচের সবচেয়ে সহজ সুযোগটি আসেন নয় মিনিটি। হোয়াও মারিও ফাঁকা গোলপোস্ট পেয়েও বল গোলবারের বাইরে মারেন।

২৩ মিনিটে গোলের সুযোগ পেয়েছিল ইরানও। জাহানবাখশের বাড়ানো বল আজমাউনের পা ছোঁয়ার আগেই বলকে তালুবন্দী করেন পর্তুগিজ গোলরক্ষক রুই প্যাট্রিসিও। ৪০ মিনিটে ৩৫ গজ দূর থেকে রোনালদো দারুণ এক শট নিলেও সেটি রুখে দেন বেইরানভান্দ।

রেফারি যখন বিরতির বাঁশি বাজাবেন ঠিক তার আগ মুহূর্তেই ম্যাচের প্রথম গোলটি করেন কারেজমা। ডান পাশে থেকে বল নিয়ে ডি বক্সের সামান্য বাইরে থেকে ডান পায়ের উল্টো দিক দিয়ে দুর্দান্ত শটে অসাধারণ গোল করে দলকে প্রথমার্ধে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন বেসিকতাসে খেলা এই ফুটবলার।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলতে থাকে পর্তুগাল। ৫৩ মিনিটে পেনাল্টি বক্সের ভেতর রোনালদোকে ফাউল করলে রেফারি এরিয়ে যান। পরবর্তীতে ভিএআরের সাহায্যে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন রেফারি। স্পট কিক থেকে রোনালদোর নেয়া শট রুখে দেন বেইরানভান্দ। ম্যাচের উত্তেজনা ছড়ায় শেষ দশ মিনিটে।

৮০ মিনিটের সময় ইরানের রক্ষণভাগের ফুটবলারকে কনুই দিয়ে আঘাত করার কারণে লাল কার্ডের শঙ্কায় পড়ে গিয়েছিলেন রোনালদো। ভিএআরের মাধ্যমে রেফারি ফাউল নিশ্চিত করে রোনালদোকে লাল কার্ড না দিয়ে হলুদ কার্ড দিয়ে সাবধান করেন। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে পর্তুগালের ডিফেন্ডার সেডরিকের হাতে বল লাগলেও রেফারি এরিয়ে যান। পরবর্তীতে ভিএআরের মাধ্যমে হ্যান্ডবল নিশ্চিত হয়ে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন।

স্পট কিক থেকে ডান কর্নারের দুর্দান্ত শট করে ইরানের হয়ে বিশ্বকাপে প্রথম গোলটি করেন আনসারিফার্দ। সমতায় ফিরে ইরান সুযোগ পেয়েছিল ম্যাচটি জিতে যাওয়ার কিন্তু ৯৪ মিনিটে তারেমি পর্তুগিজ গোলরক্ষককে ফাঁকা পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হলে ড্র নিয়ে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিতে হয় ইরানকে। অন্যদিকে, গ্রুপের দ্বিতীয় হয়ে পরবর্তী রাউন্ডে উরুগুয়ের সঙ্গে লড়াই করবে রোনালদোর পর্তুগাল।

জাগো নিউজ এর সৌজন্যে

sentbe-top