cosmetics-ad

চবিতে শিবির সন্দেহে শিক্ষার্থীকে মারধর ছাত্রলীগের

cu-student

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) শিবিরকর্মী সন্দেহে নুরুল ইসলাম নামে এক শিক্ষার্থীকে মারধর করেছে ছাত্রলীগের কর্মীরা। বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহজালাল হলের নিচ তলায় এ ঘটনা ঘটে।

মারধরের শিকার নুরুল ইসলাম ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ছাত্রলীগ কর্মী ও পদার্থবিদ্যা বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শফিকুল ইসলাম শাওনের নেতৃত্বে তাকে মারধর করা হয়েছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীদের সূত্রে জানা গেছে। মারধরকারী সিএক্সটি নাইন গ্রুপ ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, দুপুরে ফটোকপি করতে যায় নুরুল ইসলাম। এ সময় ছাত্রলীগের কর্মীরা তাকে রড দিয়ে মারধর করে তার কাছ থেকে শিবিরের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত মর্মে লিখিত বিবৃতি নেয়ার চেষ্টা করে। এতে সে অস্বীকৃতি জানায়। পরে ছাত্রলীগ কর্মীরা আহতাবস্থায় জিরো পয়েন্টে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। খবর পেয়ে প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে চবি মেডিকেল সেন্টারে পাঠায়।

ছাত্রলীগ কর্মীদের দাবি, নির্বাচনের সময় গোয়েন্দাদের তালিকায় শিবিরকর্মী হিসেবে নুরুল ইসলামের নাম ছিল। তার মোবাইলে শিবিরের বিভিন্ন ইউনিটের সঙ্গে ফেসবুকে যোগাযোগের প্রমাণও পাওয়া গেছে।

চবি মেডিকেল সেন্টারের চিকিৎসক শুভাশীষ চৌধুরী বলেন, শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। অভ্যন্তরীণ রক্তক্ষরণ হতে পারে। তাই বিকেল ৫টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন টিপু বলেন, শিবিরের প্রমাণ থাকায় তাকে ছাত্রলীগ কর্মীরা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে। নির্বাচনের সময় প্রকাশিত শিবির নেতাকর্মীর তালিকার তার নাম ছিল।

ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর প্রণব মিত্র বলেন, শিবির সন্দেহে ছাত্রলীগের কর্মীরা পুলিশের কাছে ওই শিক্ষার্থীকে সোপর্দ করে। এ সময় তারা কিছু প্রমাণও আমাকে দেখায়। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।