cosmetics-ad

অবৈধ বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠাতে কঠোর হচ্ছে ভারত

bangladeshi

ভারতে বসবাসরত অবৈধ বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠাতে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে দেশটির সরকার। সম্প্রতি দেশটিতে থাকা অবৈধ অভিবাসীরা বিভিন্ন জঙ্গিগোষ্ঠীর সঙ্গে জড়িয়ে পড়ায় এ সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে নয়াদিল্লি। অবৈধদের শনাক্ত করে নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে ইতোমধ্যে প্রত্যেক রাজ্য সরকারের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে কেন্দ্র। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই চিঠির বরাত দিয়ে রোববার ভারতের প্রভাবশালী দৈনিক টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

কেন্দ্রীয় সরকার চিঠিতে বলছে, ‘রোহিঙ্গাদের মতো অন্যান্য অবৈধ অভিবাসী শুধুমাত্র গুরুতর নিরাপত্তা উদ্বেগ তৈরি করছে না বরং ভারতীয় নাগরিকদের অধিকারও লঙ্ঘন করছে।’ অবৈধ সব অভিবাসীকে শনাক্ত ও তাদের ফেরত পাঠানোর কড়া নির্দেশ দেয়া হয়েছে চিঠিতে।

গত সপ্তাহে প্রত্যেক রাজ্য সরকারের কাছে পাঠানো ওই চিঠিতে বলা হয়, জঙ্গিগোষ্ঠীগুলোতে জড়িয়ে পড়ার ঝুঁকিতে আছে অবৈধ অভিবাসীদের। দেশটির কর্মকর্তারা বলছেন, ‘এটি ভারতের জন্য সুখকর কিছু নয়, কারণ ইতোমধ্যে দুই কোটিরও বেশি অবৈধ বাংলাদেশি অভিবাসী ভারতে বসবাস করছে।’

চিঠিতে বলা হয়, গত কয়েক দশকে সন্ত্রাসবাদের উত্থান দেশের অধিকাংশ মানুষের কাছে গুরুতর উদ্বেগের বিষয় হয়ে উঠেছে। অবৈধ অভিবাসীরা সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোতে নিয়োগের ঝুঁকিতে থাকায় এ উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

৮ আগস্ট কেন্দ্রের পাঠানো চিঠিতে বলা হয়, ‘এই অবৈধ অভিবাসীরা শুধুমাত্র ভারতীয় নাগরিকদের অধিকারে আঘাত হানছে না বরং ভয়াবহ নিরাপত্তা চ্যালেঞ্জও তৈরি করছে।’

চিঠিতে প্রত্যেক রাজ্যের জেলায় জেলায় অবৈধ অভিবাসীদের সনাক্ত করতে একটি টাস্ক ফোর্স গঠনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এই টাস্ক ফোর্স অভিবাসীদের সনাক্তের পর নিজ দেশে ফেরত পাঠাবে।

ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য বলছে, মিয়ানমারের অনেক রোহিঙ্গা ভারতে অনুপ্রবেশের পর জম্মু-কাশ্মিরের সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছে। কাশ্মির ও ভারতের অন্যান্য অঞ্চলের সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো এই রোহিঙ্গাদেরকে ভারতবিরোধী কাজে লাগাতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছেন গোয়েন্দারা।

গত বছর অবৈধ বাংলাদেশিদের ব্যাপারে ভারত সরকার জানায়, দেশটিতে দুই কোটিরও বেশি অবৈধ বাংলাদেশি রয়েছেন।