Search
Close this search box.
Search
Close this search box.

কোহলিকে ‘সতর্কবার্তা’ দিয়ে রাখলেন রোহিত

kohli-rohitটি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হিসেবে যখনই সুযোগ পেয়েছেন দেখিয়েছেন নিজের সামর্থ্য, সাফল্য এনে দিয়েছেন দলকে। নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলির বিশ্রাম তথা অনুপস্থিতিজনিত কারণে রোহিত শর্মা এখনও সফল ভারতের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হিসেবে।

chardike-ad

শুধু সফল বললে কমই বলা হবে। অধিনায়ক হিসেবে টি-টোয়েন্টি ইতিহাসের তৃতীয় সেরা জয়-পরাজয়ের অনুপাত (৩.৫:১) এখন রোহিতের। তার অধীনে এখনও পর্যন্ত ১৮টি কুড়ি ওভারের ম্যাচ খেলে ১৪টিতেই জিতেছে ভারত। বাংলাদেশের বিপক্ষে সবশেষ সিরিজটিতেই যেমন, প্রথম ম্যাচ হেরেও রোহিতের দারুণ ক্যাপ্টেন্সিতে ঘুরে দাঁড়িয়েছে ভারত।

এ সিরিজের আগে থেকেই ভারতের ক্রিকেট অঙ্গনে শুরু হয়ে গিয়েছিল আগামী বছর অস্ট্রেলিয়াতে হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ব্যাপারে আলোচনা। বিশ ওভারের ক্রিকেটের বিশ্ব মঞ্চে ভালো করার জন্য এখন থেকেই নিজেদের গোছাতে শুরু করেছে ভারতীয় ক্রিকেট দল।

আর সে লক্ষ্যে কাজটা মোটেও সহজ হবে না বলে মনে করছেন ভারতের আপাতকালীন অধিনায়ক রোহিত। বিশেষ করে বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলোয়াড়দের এমন দুর্দান্ত প্রদর্শনীর পর দল গোছাতে নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও টিম ম্যানেজম্যান্টের যে বেশ কাঠখড় পোড়াতে হবে- সেই সতর্কবার্তাই দিয়ে রাখলেন রোহিত।

ম্যাচ শেষে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে আগামী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রসঙ্গ এলে রোহিত বলেন, ‘বিশ্বকাপ আসার আগেই আমাদের ভারসাম্যপূর্ণ দল গুছিয়ে ফেলতে হবে। এই দলের কয়েকজন নেই, তারা ফিরে আসবে। সবকিছু বিবেচনায় রেখে বললে, (বিশ্বকাপ খেলতে) অস্ট্রেলিয়ার বিমানে ওঠার আগে আমরা আরও কিছু ম্যাচ পাবো। যদি আজকের ম্যাচের ধারাবাহিকতা সামনের দিনগুলোতেও ধরে রাখতে পারি, তাহলে দল সাজানোর কাজটা বেশ কঠিনই হতে যাচ্ছে কোহলি এবং নির্বাচকদের জন্য।’

এসময় স্বাভাবিকভাবেই কথা হয় ম্যাচে পাওয়া অসাধারণ জয়ের ব্যাপারে। যেখানে ৩০ রানের জয়ের পুরো কৃতিত্ব বোলারদের দেন ভারতীয় অধিনায়ক।

তিনি বলেন, ‘বোলাররাই আমাদের ম্যাচ জিতিয়েছে। শিশিরের কারণে বোলিং করা কতটা কঠিন ছিলো তা বেশ ভালোই বুঝেছি আমি। একটা সময় ওদের ৮ ওভারে ৭০ রানের মতো দরকার ছিলো। পরিস্থিতি কঠিন ছিলো আমাদের জন্য। বোলাররা দায়িত্ব নিয়ে ম্যাচটা ভালোভাবে শেষ করেই ফিরেছে।’