cosmetics-ad

তামিমকে ছাড়িয়ে সবার ওপরে এখন মুশফিক

mushfiqur
ফাইল ছবি

চলতি মিরপুর টেস্ট শুরুর আগে তামিম ইকবালের চেয়ে ১৫৪ রানে পিছিয়ে ছিলেন মুশফিকুর রহীম। সঙ্গে যোগ হয় প্রথম ইনিংসে তামিমের করা ৪১ রান। ফলে ব্যাটিংয়ে নামার আগেই ১৯৫ রানে পিছিয়ে যান মুশফিক। বাঁহাতি ওপেনারকে ছাড়িয়ে যেতে তাই ১৯৬ রান করতে হতো ডানহাতি মিডলঅর্ডার মুশফিককে।

ব্যাটিংয়ে নামার আগে, কেউ যদি বলতেন- মুশফিক আজ (সোমবার) ছাড়িয়ে যাবেন তামিমকে, তাহলে হয়তো হেসেই উড়িয়ে দিতেন অনেকে। তবে নির্ভরতার মুশফিক ঠিকই ছাড়িয়ে গেছেন তামিমকে, ১৯৬ রানের প্রয়োজনীয়তায় খেলেছেন ২০৩ রানের অপরাজিত ইনিংস।

যার ফলে বর্তমানে আন্তর্জাতিক টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ রানের মালিক এখন মুশফিক। তামিমের চেয়ে তিনি এগিয়ে গিয়েছেন ৮ রানে। বলা বাহুল্য, সাদা পোশাকের ক্রিকেটে এ দুজনেরই শুধু রয়েছে ৪ হাজারের বেশি রান।

ম্যাচ শুরুর আগে টেস্টে তামিমের সংগ্রহ ছিলো ৪৩৬৪ রান, প্রথম ইনিংসে ৪১ রান করায় এটি বেড়ে দাঁড়ায় ৪৪০৫ রানে। অন্যদিকে পাকিস্তান সফরের টেস্ট না খেলা মুশফিকের নামের পাশে ছিলো ৪২১০ রান। ফলে তামিমকে ছাড়িয়ে যেতে করতে হতো অন্তত ১৯৬ রান।

এ মিশনে পুরোপুরি সফল মুশফিক। প্রায় সাড়ে সাত ঘণ্টা ব্যাটিং করে ৩১৮ বল মোকাবেলায় ২৮ চারের মারে নিজের তৃতীয় ডাবল সেঞ্চুরির ইনিংসে ২০৩ রান করেছেন তিনি। যার ফলে ইনিংস শেষে মুশফিকের মোট রান এখন ৪৪১৩।

টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক:

১. মুশফিকুর রহীম – ৭০ ম্যাচের ১৩০ ইনিংসে ৪৪১৩ রান, সর্বোচ্চ ২১৯*
২. তামিম ইকবাল – ৬০ ম্যাচের ১১৫ ইনিংসে ৪৪০৫ রান, সর্বোচ্চ ২০৬
৩. সাকিব আল হাসান – ৫৬ ম্যাচের ১০৫ ইনিংসে ৩৮৬২ রান, সর্বোচ্চ ২১৭
৪. হাবিবুল বাশার – ৫০ ম্যাচের ৯৯ ইনিংসে ৩০২৬ রান, সর্বোচ্চ ১১৩
৫. মুমিনুল হক – ৪০ ম্যাচের ৭৪ ইনিংসে ২৮৬০ রান, সর্বোচ্চ ১৮১