sentbe-top

ওভেনে দগ্ধ করে দুই সন্তানকে হত্যা করলেন মা!

two-baby-killedসন্তানদের সামলাতে না পেরে ওভেনে ঢুকিয়ে দগ্ধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে এক মায়ের বিরুদ্ধে। গত শুক্রবার (১৩ অক্টোবর) জর্জিয়ার আটলান্টা শহরের বাসিন্দা লেমোরা উইলিয়ামসের বিরুদ্ধে ওই অভিযোগ তুলেছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, ফুলটন কাউন্টির বাসিন্দা লেমোরা তার স্বামী জামিল পেনের থেকে আলাদা থাকতেন। চার সন্তানের মধ্যে লেমোরার সঙ্গে তার ফ্ল্যাটে ছিল তিন ছেলে। তাদের মধ্যে জামিলের বয়স তিন বছর, কেয়ান্টের বয়স দুই বছর এবং এক বছরের জা’কার্টা।

প্রতিবেশির বাড়িতে খেলা করার কারণে বেঁচে গেছে ছয় বছরের মেয়ে। আর দগ্ধ হয়ে মারা গেছে জামিল ও কেয়ান্টে।

পুলিশের দাবি, কেয়ান্টে এবং জা’কার্টারকে ওভেনে ঢুকিয়ে তা চালু করে দেন তাদের মা। এতে দগ্ধ হয়ে মারা যায় লেমোরার দুই শিশু। এর পর ওভেন থেকে তাদের মৃতদেহ বের করে মেঝেতে রাখেন তিনি।

আর সে অবস্থাতেই স্বামী জামিলের সঙ্গে ‘ভিডিও চ্যাট’ শুরু করেন তিনি। মেঝেতে কেয়ান্টে এবং জা’কার্টারের নিথর দেহ দেখে প্রথমে সন্দেহ হয় জামিলের। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশে খবর দেন তিনি। পুলিশ এসে ওই দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে।

লেমোরার দাবি, তিনি নিজের সন্তানকে ওইভাবে হত্যা করেননি। এক আত্মীয়ের কাছে ওই দুই শিশুকে দেখাশোনার জন্য ছেড়ে গিয়েছিলেন তিনি। তখনই ওই শিশুরা মারা গেছে।

তিনি আরও দাবি করেন, সন্তানদের কথা ভেবে সম্প্রতি চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন তিনি। তার পর থেকেই সন্তানদের সময় দিচ্ছিলেন তিনি। তবে লেমোরার বক্তব্যে অসঙ্গতি থাকায় পুলিশের সন্দেহ হয়। তাকে সন্তানদের খুনের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়।

মানসিক ভাবে লেমোরা অসুস্থ ছিলেন বলে জানিয়েছে। বিষয়টি তারা নাকি তদন্ত করতে গিয়ে জানতে পেরেছেন। ১৯ বছর বয়সে বাবার মৃত্যুর পর থেকেই তিনি নাকি মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন।

আপাতত পুলিশের হেফাজতে আছেন লেমোরা। আদালতের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তাকে পাঠানোর স্থান ঠিক করা হবে।

সূত্র : দ্য ইনডিপেন্ডেন্ট

sentbe-top