প্রেমিকের ফোন পেয়ে বিমান থেকে নেমে গেলেন তরুণী

us-bangla৩ মার্চ সন্ধ্যা। যশোর বিমানবন্দর থেকে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের একটি উড়োজাহাজ (প্লেন) ঢাকায় যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিল। ভিআইপিসহ সব যাত্রী যে যার সিটে বসে গেছেন। ইঞ্জিনও চালু করেছেন পাইলট। ঠিক এ সময়ে ঘটলো অঘটন। হঠাৎ ‘আমি যাবো না, আমি অসুস্থ, আমাকে নামিয়ে দিন’ বলে চিৎকার করে উঠলো এক তরুণী। হুট করে ওই তরুণীর এমন আচরণে চমকে উঠলো প্লেনের সবাই। যাত্রা শুরুর পর প্লেনের ভেতরে তরুণীর এমন আচরণ দেখে আতঙ্কিতও হলো অনেকে। তাকে নামিয়ে দেওয়া হলো।

কিন্তু, বিমানবন্দরে নামিয়ে জানা গেলো অসুস্থতা ছিল ভান, প্রেমিকের ফোন পেয়ে প্লেন থেকে নেমে যাওয়ার জন্য চিৎকার করেছিল ওই তরুণী। পরে তাকে আটক করে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের যশোরের ব্যবস্থাপক সাব্বির হোসেন তুতুল। তিনি জানান, ইঞ্জিন চালুর পরপরই মেয়েটি চিৎকার করে ওঠেন তাকে নামিয়ে দেওয়ার জন্য। তিনি তখন নিজেকে অসুস্থ দাবি করলেও পরে জানা যায়, তার বয়ফ্রেন্ড বিমানবন্দর এলাকায় অবস্থান করছে এবং তাকে ফোন করেছেন। ফোন পেয়েই তিনি চিৎকার করে ওঠেন। তখন তাকে নামিয়ে দেওয়া হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তিনি অসুস্থ নন।

গত ৩ মার্চ সন্ধ্যায় ইউএস-বাংলার ওই প্লেনটি উড্ডয়নের জন্য ইঞ্জিন চালু করলে সাদিয়া নামে ওই যাত্রী নেমে যাওয়ার জন্য হঠাৎ চিৎকার করে ওঠেন। তার এমন অস্বাভাবিক আচরণে বিমানের যাত্রীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ক্রুরা দরজা খুলে মেয়েটিকে নামিয়ে দেন।

এসময় ওই প্লেনে যাত্রী হিসেবে প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদসহ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, দলের কেন্দ্রীয় নেতা জাহাঙ্গীর কবিরসহ আরও কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ছিলেন। তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার খুলনার জনসভা শেষে ঢাকায় ফিরছিলেন। পরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই তরুণীকে আটক করা হয়। প্রায় আধা ঘণ্টা পর উড়োজাহাজটি বিমানবন্দর ছেড়ে যায়।

অন্যদিকে,ওই তরুণীকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। ওই তরুণী ও তার কাজিনকে ৫৪ ধারায় আটক দেখিয়ে আদালতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। রবিবার দুপুরে যশোর কোতোয়ালি থানার ওসি আজমল হুদা এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সৌজন্যে- বাংলা ট্রিবিউন