Search
Close this search box.
Search
Close this search box.

‘ডুব’ নিয়ে এতো নাটক করার কী ছিল?

dubpমোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত ছবি ‘ডুব’নিয়ে প্রথম থেকেই যেন বিতর্কের শেষ নেই। ছবিটির সঙ্গে বারবার জড়িয়েছে কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের নাম। ‘ডুব’ মুক্তি পাওয়ার পরও থামেনি সেই বিতর্ক। ছবিটি হুমায়ূন আহমেদের জীবনী কিংবা জীবনী নয়- এ দুই ভাগে ভাগ হয়ে গেছে দর্শক।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে ‘ডুব’ছবিটি লেখকের জীবনী নির্ভর এমন আশঙ্কা থেকে সেন্সর বোর্ডে একটি চিঠি দিয়েছিলেন লেখকের স্ত্রী অভিনেত্রী মেহের আফরোজ শাওন। হুমায়ূন আহমেদের সঙ্গে তার সম্পর্ককে নেতিবাচকভাবে দেখানো হতে পারে- এমন শঙ্কাও ছিল তার।

তার আপত্তির মুখে চলচ্চিত্রটিকে কোনো রকম মুক্তি না দিতে আদেশ দেয় তথ্য মন্ত্রণালয়। এরপর তথ্য মন্ত্রণালয় ও সেন্সরবোর্ড বিভিন্ন রকম যাচাই-বাছাই শেষে বেশ কিছু দৃশ্য কর্তন করে গত ৮ আগস্ট ছবিটিকে সেন্সর ছাড়পত্র দেয়। তারই আলোকে গত ২৭ অক্টোবর মুক্তি পেয়েছে বহুল আলোচিত ছবিটি।

মুক্তির পর ফের শুরু হয় বিতর্ক। কেউ কেউ বলছেন, ছবিটির কাহিনী কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের জীবন থেকে নেওয়া। আবার কেউ কেউ বলছেন, ফারুকীর চমৎকার নির্মাণ ‘ডুব’। কেউ বা আবার ডুব দেখে হয়েছেন হতাশ।

রাজধানীর বলাকা সিনেমা হলে ‘ডুব’দেখতে আসা ফারুক আহমেদ বলেন, যদিও পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকী শুরু থেকেই বলে এসেছেন এই কাহিনী কাল্পনিক। তবে সিনেমা রিলিজ হওয়ার আগে ও পরে আলোচনার স্থূলতায় আর সিনেমা দেখার পর কারও বুঝতে কষ্ট হবে না এটা কার জীবন থেকে নেয়া! আমার কথা হচ্ছে এক লুকোচুরির কী আছে? বলে দিলেই হয় এটা হুমায়ূন আহমেদের জীবনী নিয়ে ছবি। এতো নাটক করার দরকার ছিল না।

chardike-ad

মিয়াজ কায়সার নামে এক দর্শক বলেন, যে চিন্তা করে ‘ডুব’ সিনেমা দেখতে এসেছিলেম তার কিছুই পেলাম না। এ যেন একটি ছোট নাটক। একটির সঙ্গে অন্যটির কোন মিল নেই। তবে সিনেমার ‘আহারে জীবন’ একটি অনেক ভালো লেগেছে। এছাড়া উল্লেখযোগ্য তেমন কিছু নেই সিনেমায়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শাহিন আহমেদ বলেন, পরিচালক ফারুকীর নিজস্ব গল্প বলার ঢং আছে। ডুবে সেই ঢঙের প্রতিফল দেখেছি। কথা বলার চেয়ে নৈশব্দে অনেক কথা বলা যায়, সেটা বোঝার জন্য আপনাকে এই ছবি দেখতে হবে।

শাওন নামে এক দর্শক বলেন, প্রথম থেকে শেষ মাথার উপর দিয়ে গেছে। কিছুই বুঝলাম না। টাকাটাই মনে হচ্ছে……।

মনিশা শৈলী নামে এক দর্শক বলেন, চমৎকার একটি সিনেমা দেখলাম। পরিবার নিয়ে দেখার মতো একটি সিনেমা। গল্প- কাহিনী- অভিনয় সবকিছু মিলিয়ে এক কথায় অসাধারণ। দীর্ঘদিন অপেক্ষায় ছিলাম এ রকম একটি সিনেমার জন্য। আজ বাবা-মাকে নিয়ে ছবিটি দেখলাম।

মারুফ নামে একজন বলেন, যেমন আশা করে ‘ডুব’ দেখতে আসা তার কিছুই নেই। বিনোদন বলতে কিছুই নেই। সিনেমা হলে বসে বিরক্ত হলাম আরকি!

মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত ‌‘ডুব’ ছবিতে অভিনয় করেছেন বলিউডের অভিনেতা ইরফান খান ও কলকাতার পার্নো মিত্র, বাংলাদেশের নুসরাত ইমরোজ তিশা ও রোকেয়া প্রাচী। বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়ার পাশাপাশি কলকাতার এসকে মুভিজ ছবিটি প্রযোজনা করেছে। এছাড়া সহ-প্রযোজক হিসেবে রয়েছেন ইরফান খান। অর্থসূচক এর সৌজন্যে